Home Page

Id No...672

Name : Selltoearn.com
E-mail :1 selltoearnmoney@gmail.com
E-mail :2 selltoearn.com@gmail.com
News Type : Sports
Location :ABROAD

പറക്കും ക്യാച്ചുമായി പാണ്ഡ്യ; കണ്ണുതള്ളി ആരാധകർ...



മൗണ്ട് മോൻഗനൂയി∙ ടെലിവിഷൻ ചാറ്റ് ഷോയിലെ സ്ത്രീവിരുദ്ധ പരാമർശങ്ങളുടെ പേരിൽ പുലിവാലു പിടിച്ച് ഒരു വിഭാ... Read more at: https://www.manoramaonline.com/sports/cricket/2019/01/28/hardik-pandya-diving-catch-to-get-out-kane-williamson.html

Source: Plz, click here to show
--------------------------------

Id No...597

Name : Selltoearn.com
E-mail :1 selltoearnmoney@gmail.com
E-mail :2 selltoearn.com@gmail.com
News Type : Sports
Location :DHAKA

ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকালেন মি. ডিপেন্ডেবল



পাঁচ বছর আগে ২০১৩ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গল টেস্টে দেশের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। ঠিক ২০০ রান ছিল এতদিন তার সর্বোচ্চ ইনিংস। আজ ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ফেললেন মুশি। এই ম্যাজিক্যাল মাইলফলকে পৌঁছতে `মি. ডিপেন্ডেবল` খেলেছেন ৪০৭ বল; হাঁকিয়েছেন ১৬ টি বাউন্ডারি এবং ১টি ওভার বাউন্ডারি। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মুশফিকের সংগ্রহ ২০০ রান। হাফ সেঞ্চুরি করেছেন মেহেদী মিরাজ। বাংলাদেশের সংগ্রহ ৭ উইকেটে ৪৮৬ রান। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ দ্বিতীয় দিন লাঞ্চের পর ৬ষ্ঠ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ব্যক্তিগত ৩৬ রানে জার্ভিসের বলে ধরা পড়লেন চাকাভার গ্লাভসে। এর সঙ্গে ভাঙে ৬ষ্ঠ উইকেটে ৭৩ রানের জুটি। এরপর টিকতে পারেননি আরিফুল হকও। মুশফিকের সঙ্গী হয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। এর আগে গতকাল রবিবার প্রথম দিন শেষে ৫ উইকেটে ৩০৩ রান তুলেছিল বাংলাদেশ। ২৬ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর দলকে খাদ থেকে টেনে তুলেন মুশফিকুর রহিম এবং মুমিনুল হক। চতুর্থ উইকেটে গড়েন ২৬৬ রানের দুর্দান্ত জুটি। ১৫০ বলে ১২ বাউন্ডারিতে ক্যারিয়ারের ৭ম টেস্ট সেঞ্চুরি তুলে নেন মুমিনুল হক। সর্বশেষ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হোম সিরিজে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন তিনি। দিনের খেলার শেষভাগে দলকে সুবিধাজনক অবস্থানে রেখে প্যাভিলিয়নে ফিরলেন মুমিনুল হক। তার ২৪৭ বলে ১৬১ রানের অসাধারণ ইনিংসে ছিল ১৯টি বাউন্ডারি। মুমিনুলের পর সেঞ্চুরি হাঁকান মুশফিকও। ক্যারিয়ারের ৬ষ্ঠ সেঞ্চুরিতে পৌঁছতে `মি. ডিপেন্ডেবল` খেলেন ১৮৭ বল। হাঁকান ৮টি বাউন্ডারি। মুমিনুল আউট হওয়ার পর ৬ ওভার বাকী থাকায় অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর পরিবর্তে উইকেটে আসেন `নাইটওয়াচম্যান` তাইজুল ইসলাম। ৪ রান করে জার্ভিসের বলে ক্যাচ দেন উইকেটের পেছনে। রিভিউ জিতে তাইজুলকে প্যাভিলিয়নে পাঠায় জিম্বাবুয়ে। দিনের বাকী সময়টা দুই ভায়রা-ভাই মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ নিরাপদে কাটিয়ে দেন।

Source: Plz, click here to show
--------------------------------

Id No...591

Name : Selltoearn.com
E-mail :1 selltoearnmoney@gmail.com
E-mail :2 selltoearn.com@gmail.com
News Type : Sports
Location :SYLHET

বোলিংয়ে বাংলাদেশ, একাদশে দুই চমক



ওয়ানডে সিরিজে দারুণ সাফল্য পেয়েছে বাংলাদেশ। সফরকারী জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করেছে। সে ধারাবাহিকতায় এবার সিরিজের প্রথম টেস্টে লড়াইয়ে নেমেছে লাল-সবুজের দল। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে স্টেডিয়ামে এই ম্যাচে টস হেরে বোলিংয়ে নেমেছে স্বাগতিক দল। এই ম্যাচের বাংলাদেশ একাদশে রয়েছে দুই চমক। এক সঙ্গে দুই ক্রিকেটারের অভিষেক হয়েছে। তারা হলেন- অলরাউন্ডার আরিফুল হক ও স্পিনার নাজমুল ইসলাম অপু। আরিফুল চলমান সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে জাতীয় দলের হয়ে প্রথম কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে নামেন। এবার সিলেটে টেস্ট ম্যাচেও অভিষেক হয় তাঁর। আর অপু এর আগে পাঁচটি ওয়ানডে খেলে নিজের যোগ্যতার ভালোই প্রমাণ দিয়েছেন। তাই টেস্টে ক্রিকেটেও অভিষেক হয় তাঁর। সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালের অনুপস্থিতে দীর্ঘদিন পর টেস্ট দলে ফিরেছেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্ত। গত বছর জানুয়ারিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট খেলেছিলেন তিনি। সে ম্যাচের দুই ইনিংসেই খুব একটা সুবিধা করতে পারেননি। তাই দলে জায়গা হারান। এদিকে বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমান দলে থাকলেও এই ম্যাচের একাদশে নেই। তাঁকে বিশ্রামে রাখা হয়েছে। দলে তিনজন স্পিনার নেওয়া হয়েছে। মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম ও নাজমুল ইসলাম অপু। আর দুজন পেসার হলেন আবু জায়েদ রাহি ও আরিফুল হক। বাংলাদেশ একাদশ : লিটন দাস, ইমরুল কায়েস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, আরিফুল হক, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, নাজমুল ইসলাম অপু, আবু জায়েদ রাহি।

Source: Plz, click here to show
--------------------------------

Id No...570

Name : Selltoearn.com
E-mail :1 selltoearnmoney@gmail.com
E-mail :2 selltoearn.com@gmail.com
News Type : Sports
Location :ABROAD

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচে মেসিকে নিয়ে যা বললেন নেইমার



ফুটবল মানেই উত্তেজনা-উন্মাদনা। ফুটবলপ্রেমীদের কাছে মাঠের নব্বই মিনিট যেন জীবনের শ্রেষ্ঠ সময়! আর ম্যাচটি যদি হয় আর্জেন্টিনা বনাম ব্রাজিলের- তাহলে সেই উত্তাপ পৌঁছে যায় অন্য মাত্রায়। উত্তাপ আর তর্ক-বিতর্কের ছড়িয়ে পড়ে পুরো ফুটবল জগতে। তবে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা সেই লড়াইয়ের চব্বিশ ঘণ্টা আগে হতাশায় ডুবলো ফুটবলপ্রেমীরা! মঙ্গলবার জেদ্দায় ফিফা ফ্রেন্ডলিতে লিওনেল মেসি বনাম নেইমার দা সিলভা স্যান্টোস (জুনিয়র) দ্বৈরথই যে হচ্ছে না। রাশিয়া বিশ্বকাপের শেষ ষোলোয় ফ্রান্সের বিরুদ্ধে হারের পরেই আর্জেন্টিনার জাতীয় দল থেকে বিশ্রাম নিয়েছেন মেসি। তাই ফিফা ফ্রেন্ডলিতে আর্জেন্টিনা খেললেও আগ্রহ নেই ভক্তদের। মেসি না থাকায় হতাশ নেইমারও। আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে ম্যাচের আগে এক সাক্ষাৎকারে ব্রাজিল তারকা বলেছেন, ‘‘মেসি খেললে ফুটবলেরই উপকার হবে। ওর খেলা দেখা ফুটবলপ্রেমীদের কাছে সেরা প্রাপ্তি।’’ নেইমারের আশা, দ্রুতই ব্রাজিলের জার্সি গায়ে মেসির আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে খেলবেন। মেসি আর্জেন্টিনার হয়ে না খেলায় হতাশ ব্রাজিলের অন্য ফুটবলারেরাও। জোয়াও মিরান্দা ফিলহো বলেছেন, ‘‘মেসি-নেইমার দু’জনেই এই মুহূর্তে বিশ্বের সেরা ফুটবলার। ওদের খেলা দেখার জন্যই সবাই অপেক্ষা করে থাকে।’’ দানিলো দা সিলভার কথায়, ‘‘মেসি, নেইমারের মতো ফুটবলার দলকে সব সময় অন্য উচ্চতায় নিয়ে যায়। আশা করছি, মঙ্গলবার নেইমার সেই কাজটাই করবে।’’ ব্রাজিল বনাম আর্জেন্টিনা ফিফা ফ্রেন্ডলি ঘিরে ফুটবলপ্রেমীরা আগ্রহ হারিয়েছেন। কিন্তু মঙ্গলবারের মর্যাদার লড়াইয়ে পাঁচ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা জিততে মরিয়া। ম্যাচের আগে সতীর্থদের উজ্জীবিত করার দায়িত্ব নিজের কাঁধেই তুলে নিয়েছেন নেইমার। তাঁর কথায়, ‘‘সতীর্থদের বলেছি, এই ম্যাচটা আমাদের কাছে স্পেশ্যাল। কারণ, আর্জেন্টিনা আমাদের চিরশত্রু। আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে কোন ম্যাচই বন্ধুত্বপূর্ণ হতে পারে না।’’ তিনি যোগ করেছেন, ‘‘আর্জেন্টিনা দলে প্রচুর ভাল ফুটবলার রয়েছে। আমাদের দায়িত্ব ম্যাচটাকে সুন্দর করে তোলা।’’ আর্জেন্টিনা ম্যাচের প্রস্তুতির মাঝেই মরুভূমি সফরে গিয়েছিলেন নেইমাররা।

Source: Plz, click here to show
--------------------------------

Id No...546

Name : Selltoearn.com
E-mail :1 selltoearnmoney@gmail.com
E-mail :2 selltoearn.com@gmail.com
News Type : Sports
Location :DHAKA

এ বিজয় আমাদের: প্রধানমন্ত্রী



প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চলমান এশিয়া কাপ ক্রিকেটে পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের বিজয়ে উৎফুল্ল প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।

তিনি বলেন, আমি আমার ক্রিকেট দলকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাই। দোয়া করি, তারা যে জয়ের ধারা সূচনা করেছ, সেটা যেন অব্যাহত থাকে। এ বিজয় আমাদের।

“আমি পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাই,” বলেন শেখ হাসিনা।

আবুধাবিতে এশিয়া কাপ ক্রিকেটে পাকিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের বিজয়ের পর প্রধানমন্ত্রী তার তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।-খবর বাসস।

প্রধানমন্ত্রী জয়ের এ ধারাবাহিকতা বজায় থাকার দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, আমি সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করছি- জয়ের যে ধারা শুরু হয়েছে, তা যেন অব্যাহত থাকে।

ভি চিহ্ন প্রদর্শন করে তিনি বলেন, বাংলাদেশ আগামীতেও এমনই অনেক বিজয় ছিনিয়ে আনতে সক্ষম হবে ইনশাল্লাহ। এ বিজয় আমাদের।

বুধবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে কার্যত সেমিফাইনালে পরিণত হওয়া ম্যাচে দুবারের চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তানকে পরাজিত করে ছয় জাতির এশিয়া কাপ ক্রিকেটে এবারের চতুর্দশ আসরের ফাইনালে স্থান করে নিয়েছে বাংলাদেশ ।

আগামী শুক্রবার আবুধাবি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ফাইনালে ভারতের মুখোমুখি হবে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের জয় উদযাপন করতে প্রধানমন্ত্রী নিউ ইয়র্কে তার সফরসঙ্গীদের মিষ্টিমুখ করান।



Source: Plz, click here to show
--------------------------------

Id No...544

Name : Selltoearn.com
E-mail :1 selltoearnmoney@gmail.com
E-mail :2 selltoearn.com@gmail.com
News Type : Sports
Location :ABROAD

পাকিস্তানকে হারিয়ে এশিয়া কাপের ফাইনালে বাংলাদেশ



বাংলাদেশকে ২৩৯ রানে বেঁধে ফেলে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা বেশ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছিলেন। ভেবেছিল এই রান টপকানো তাদের জন্য খুব একটা কষ্টসাধ্য ব্যাপার নয়। কিন্তু প্রতিপক্ষ দলটি যে বাংলাদেশ, যে কোনো দলের বিপক্ষেই ভালো কিছু করার সামর্থ্য তাদের রয়েছে। সেটা তারা প্রমাণও করেছে সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে আবার এশিয়া কাপের ফাইনালে উঠে। আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে বাংলাদেশ ৩৭ রানে হারিয়েছে পাকিস্তানকে। বাংলাদেশের করা ২৩৯ রানের জবাবে প্রতিপক্ষের ইনিংস থেমে যায় ২০২ রানে। এ নিয়ে আসরে তৃতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ। এর আগে ২০১২ ও ২০১৪ সালে ঘরের মাঠে এশিয়া কাপের ফাইনালে উঠেছিল তারা। দু`বার রানার্সআপ হয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল তাদের। লক্ষ্য অনেক বড় না হলেও, এদিন পাকিস্তান শুরু থেকেই বেশ চাপে ছিল। দলীয় মাত্র ১৮ রানে তিন উইকেট হারিয়ে বসে তারা। এর পর চতুর্থ উইকেট জুটিতে কিছুটা দৃঢ়তা দেখান শোয়েব মালিক ও ইমাম-উল হক। দুজনে মিলে ৬৭ রানের জুটি গড়েন। তখনই মাশরাফির দুর্দন্ত এক ক্যাচে সাজঘরে ফিরেন শোয়েব (৩০)। কিছুক্ষণের মধ্যে প্যাভিলিয়নে ফিরেন শাদাব খানও (৪)। পরে ইমাম ৮৩ রানের চমৎকার একটি ইনিংস খেলে দলকে কিছুটা এগিয়েও নিয়েছিলেন। তাঁকে যোগ্য সহায়তা দিয়েছিলেন আসিফ আলী (৩১)। কিন্তু দুজনেই ফিরে গেলে আবার বিপদে পড়ে দলটি। এই অবস্থা থেকে আর কাটিয়ে উঠতে পারেনি তারা।

বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমান ৪৩ রানে চার উইকেট নিয়ে পাকিস্তানের ব্যাটিং ধস নামান। মেহেদী হাসান মিরাজ ২৮ রানে দুটি এবং রুবেল হোসেন, মাহমুদউল্লাহ ও সৌম্য সরকার একটি করে উইকেট পান। এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশেরও শুরুটা ভালো হয়নি, দলীয় মাত্র ১২ রানে তিন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বসে বাংলাদেশ। এর পরই চতুর্থ উইকেট জুটিতে মুশফিক ও মিঠুন ১৪৪ রানের জুটি গড়ে দলকে একটা ভালো সংগ্রহের পথ দেখান। মিঠুন ৬০ রান করে ফিরে গেলেও দলকে অনেকটাই এগিয়ে নেন মুশফিক। কিন্তু `মিস্টার ডিপেন্ডেবল` খ্যাত এই বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরির একেবারেই কাছাকাছি গিয়েও ৯৯ রান করে আউট হয়ে যান। অল্পের জন্য ক্যারিয়ারের সপ্তম ওয়ানডে সেঞ্চুরি বঞ্চিত হন তিনি। তবে সেঞ্চেুরি না পেলেও দলকে একটা ভালো সংগ্রহ গড়ে দিতে মূল্যবান অবদান রাখেন মুশফিক। এ ছাড়া মাহমুদউল্লাহ ২৫ ও মাশরাফি শেষ দিকে এসে ১৩ রান করেন। দীর্ঘদিন পর দলে ফিরে সৌম্য সরকার শূন্য রানে ফিরে গেছেন শুরুতেই। আর মুমিনুল পাকিস্তানি পেসার শাহীন আফ্রিদীর শিকার হয়ে ফেরার আগে করেন পাঁচ রান। লিটন ছয় রান করে আউট হন। বেশিক্ষণ থাকতে পারেননি ইমরুল কায়েসও (৯)। এদিনের ম্যাচে সবচেয়ে বড় চমক ছিল বাংলাদেশ একাদশে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের না থাকা। চোটের কারণে বাইরে রাখা হয়েছে তাঁকে। তাঁর বদলে দলে নেওয়া হয় মুমিনুল হককে। নাজমুল হোসেন শান্তর বদলে দলে সুযোগ পান সৌম্য। পেসার রুবেল হোসেন ফিরেন নাজমুল ইসলাম অপুর জায়গায়।

Source: Plz, click here to show
--------------------------------

Id No...495

Name : Selltoearn.com
E-mail :1 selltoearnmoney@gmail.com
E-mail :2 selltoearn.com@gmail.com
News Type : Sports
Location :ABROAD

ফ্রান্সই এবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন



একপেশে ম্যাচ! বড্ড একপেশে! ৪-২ স্কোরলাইন তো এটাই বলে!

বিশ্বকাপের যেকোনো পরিসংখ্যান ঘাঁটতে গেলে একটি কথা যোগ করা হয় ‘১৯৬৬ বিশ্বকাপ থেকে’। কারণ, পরিসংখ্যানের হিসাব-নিকাশের দৌড় ওখানেই থামে। কিন্তু ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া ফাইনাল আক্ষরিক অর্থেই ১৯৬৬-র বিশ্বকাপকে টেনে আনল। বিশ্বকাপের ফাইনালে যে ৬ গোল হতে পারে, সেটা জিওফ হার্স্টের হ্যাটট্রিকের দিনেই শেষ দেখেছিল বিশ্ব।

পশ্চিম জার্মানির সঙ্গে সেই ম্যাচে তবু অনেক নাটক হয়েছিল। ৬ গোলের দেখা পেতে ম্যাচটার যোগ করা সময়ে যেতে হয়েছিল। কিন্তু আজ ৯০ মিনিটেই সব চুকে গেছে। আর এর মধ্যেই ৬ গোল। গত চারটি ফাইনালে ৮ দল মিলিয়ে ৪৫০ মিনিট ফুটবল খেলে ঠিক এই কয়টা গোলই করেছিল!

স্কোরলাইন যে কতটা ভুল বোঝাতে পারে, এর উদাহরণ হয়ে থাকবে এ ফাইনাল। ম্যাচটাকে একপেশে মনে হচ্ছিল শুধু ৬৫ মিনিটে। যখন পেলেকে আরও একবার মনে করিয়ে দিলেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। ৬০ বছর পর বিশ্বকাপ ফাইনাল আরেকজন কিশোর গোলদাতা পেল। ১৯ বছর ৬ মাস বয়সী এমবাপ্পে বিশ্বকাপে নিজেকে চিনিয়েছেন আগেই। ফাইনালে লুকাস হার্নান্দেজের বানিয়ে দেওয়া চমৎকার এক বলে আরও এক চমৎকার শট নিয়ে সেটা রেকর্ড বইয়েও স্থান করিয়ে নিলেন (৪-১)। পেলের পর দ্বিতীয় কনিষ্ঠ খেলোয়াড় হিসেবে বিশ্বকাপ ফাইনালে গোলের রেকর্ড এখন এমবাপ্পেরই।

৪ মিনিট পরেই ইতিহাসে আরেকজন জায়গা করে নিলেন। হুগো লরিসের হাস্যকর এক ভুলে বল জালে পাঠালেন মারিও মানজুকিচ। বিশ্বকাপের মাত্র দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে একই খেলায় গোল ও আত্মঘাতী গোল করে ফেললেন ক্রোয়েশিয়ান ফরোয়ার্ড। ১৯৭৮ সালে নেদারল্যান্ডসের আরনি ব্রান্টের তবু সান্ত্বনা, এ কীর্তি তাঁর ফাইনালে নয়। এদিক থেকে ইতিহাসে পাকাপাকি জায়গা করে নিয়েছেন মানজুকিচ। ইতিহাসের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ফাইনালে আত্মঘাতী গোল করেছেন সেই ১৮ মিনিটে।

আঁতোয়ান গ্রিজমানের ফ্রি কিক থেকে উড়ে আসা বলে ফ্রান্সের কোনো খেলোয়াড় বল ছুঁতে পারেননি। সে বল আগেই যে মাথা ছুঁয়ে গেছে মানজুকিচের। সুবাসিচকে ধাঁধায় ফেলে দিয়ে বল জালে জড়িয়ে গেল (১-০)। বল দখল, আক্রমণের তীব্রতা—সবকিছুতেই এগিয়ে থাকা এক দল হঠাৎ করেই পিছিয়ে পড়ল! সেমিফাইনালেই নিজেকে ক্রোয়েশিয়ার জনগণের নায়ক বানিয়ে ফেলা মানজুকিচ হঠাৎ করেই বনে গেলেন খলনায়কে।

মানজুকিচ তবু নায়ক-খলনায়কের নাগরদোলায় চড়তে তিন দিনের বিরতি নিয়েছেন। ইভান পেরিসিচ যে সে অভিজ্ঞতা নিলেন মাত্র ১০ মিনিটের মধ্যেই। ২৮ মিনিটে বক্সের মধ্যে বল পেয়ে ফ্রান্স রক্ষণকে ব্যবহার করে লরিসকে আড়ালে ফেলে দিলেন। দূরের পোস্টে আশ্রয় নিল বল, টানা চতুর্থ ম্যাচে প্রথমে পিছিয়ে পড়েও সমতায় ফিরল ক্রোয়েশিয়া (১-১)। ৩৮ মিনিটেই সেই পেরিসিচ খলনায়ক। ডি-বক্সে অযথা হাত বাড়িয়ে বল নিয়ন্ত্রণ নিলেন। কিন্তু তাঁর সেই চাতুরী ধরা পড়ে গেল ভিএআরে। পেনাল্টি থেকে ফ্রান্সকে আবারও এগিয়ে দিলেন গ্রিজমান (২-১)। প্রথমার্ধে তাই হাসিমুখেই মাঠ ছেড়েছে ফ্রান্স।

দ্বিতীয়ার্ধেও খেলায় এগিয়ে ছিল ক্রোয়েশিয়া। কিন্তু বারবার যেভাবে গোলের সুযোগ হাতছাড়া করছিল তারা, তাতে বোঝাই যাচ্ছিল ভাগ্য আজ ফ্রান্সের পক্ষে। ৫৯ মিনিটেই সেটা প্রমাণিত হয়ে গেল। ডান প্রান্ত দিয়ে বল টেনে নিলেন এমবাপ্পে। তাঁর নিচু ক্রস থেকে গ্রিজমান কিছু করতে না পারলেও সেটা পল পগবার দিকে ঠেলে দিলেন। পগবার ডান পায়ের শট মদরিচের গায়ে লেগে ফিরে এলেও হতাশ হননি। ফিরতি বলে বাঁ পায়ের শট। এবারও পরাস্ত হলেন সুবাসিচ (৩-১)। টানা চতুর্থ মোনাকো গোলরক্ষক হিসেবে বিশ্বকাপের ফাইনালে পরাজিত দলের গোলরক্ষকের রেকর্ডটাও অক্ষত থাকবে, সেটাও তখন নিশ্চিত হওয়া গেল।

৪ মিনিটের মধ্যে এমবাপ্পে ও মানজুকিচের দুই রেকর্ডের অংশ হওয়া কিছুক্ষণের জন্য উত্তেজনা ছড়িয়েছিল। কিন্তু টুর্নামেন্টজুড়ে হিসাবি ফুটবল খেলা ফ্রান্স নিজেদের কোনো বিপাকে পড়তে দেয়নি। উল্টো গোল শোধ দিতে মরিয়া ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে প্রতি আক্রমণে উঠে ব্যবধান বাড়ানোর সম্ভাবনা সৃষ্টি করেছিল। গতিময় ফ্রান্সের সঙ্গে আর পেরে ওঠা হয়নি ৯০ মিনিট বেশি খেলে ফাইনালে ওঠা ক্রোয়েশিয়ার।

Source: Plz, click here to show
--------------------------------

Id No...458

Name : Selltoearn.com
E-mail :1 selltoearnmoney@gmail.com
E-mail :2 selltoearn.com@gmail.com
News Type : Sports
Location :ABROAD

রাশিয়া বিশ্বকাপ: দেখে নিন কোয়ার্টার ফাইনালে কোন দল কার বিপক্ষে



রাশিয়া বিশ্বকাপে শেষ ষোল এর পর্ব শেষে এবার কোয়ার্টার ফাইনালের পর্ব শুরু হচ্ছে আগামী শুক্রবার।

শেষ ষোল’র জয়ী ৮ দল এবার সেমিফাইনালে উঠার লড়াইয়ে নামবে। কোয়ার্টার ফাইনালে কোন দল কার বিপক্ষে, কোথায় এবং কখন মুখোমুখি হচ্ছে।
১ম কোয়ার্টার ফাইনাল:
উরুগুয়ে বনাম ফ্রান্স- শুক্রবার, ৬ জুলাই। নিঝনি নভগোরদ স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় অনুষ্ঠিত হবে।

২য় কোয়ার্টার ফাইনাল:

ব্রাজিল বনাম বেলজিয়াম- শুক্রবার, ৬ জুলাই। কাজান এরেনায় বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় অনুষ্ঠিত হবে।

৩য় কোয়ার্টার ফাইনাল:

সুইডেন বনাম ইংল্যান্ড- শনিবার, ৭ জুলাই। সামারা এরেনায় বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় অনুষ্ঠিত হবে।

৪র্থ কোয়ার্টার ফাইনাল:

রাশিয়া বনাম ক্রোয়েশিয়া- শনিবার, ৭ জুলাই। সোচি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় অনুষ্ঠিত হবে।

Source: Plz, click here to show
--------------------------------

Id No...450

Name : Selltoearn.com
E-mail :1 selltoearnmoney@gmail.com
E-mail :2 selltoearn.com@gmail.com
News Type : Sports
Location :ABROAD

দর্শকদের সাজে কমতি ছিল না



ব্রাজিলের বিপক্ষে মেক্সিকোর ছন্দপতন। কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে গেছে ব্রাজিল। আরেক নাটকীয় ম্যাচে জাপানকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে বেলজিয়াম। ব্রাজিল-বেলজিয়াম দেখা হবে কোয়ার্টার ফাইনালে। এসবই খেলার খবর। খেলার বাইরে যারা ছিলেন গ্যালারিতে কিংবা খোলা রাস্তায়, তাদের মধ্যে ছিল উৎসবের আমেজ। দল হেরে যাওয়ায় কেউ কেঁদেছেন কেউ আবার চওড়া হাসি সঙ্গী করে বাড়ি ফিরেছেন। ছবিতে ছবিতে দেখুন রাশিয়া বিশ্বকাপে দর্শকদের উন্মাদনা, হাসি-কান্না। সূত্র: প্রথম আলো।

Source: Plz, click here to show
--------------------------------

Id No...437

Name : Selltoearn.com
E-mail :1 selltoearnmoney@gmail.com
E-mail :2 selltoearn.com@gmail.com
News Type : Sports
Location :ABROAD

যেকোনো কিছূই হতে পারে মেসি আলো ছড়ালে



বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচেই পেনাল্টি মিস করে সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন লিওনেল মেসি। আইসল্যান্ডের বিপক্ষে মেসি পেনাল্টিটি কাজে লাগাতে পারলে সেদিন জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারত তাঁর দল। ১-১ গোলে ড্রয়ের ম্যাচে মেসির ভুলটাই বড় হয়ে ধরা পড়েছিল সবার চোখে। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে বড় ম্যাচে মেসি আইসল্যান্ডের ম্যাচটিকে অতীত বানিয়ে ঘুরে দাঁড়াবেন দলের প্রয়োজনে, এমন প্রত্যাশা ছিল সবারই। কিন্তু সেদিন মেসি রইলেন তাঁর ছায়া হয়ে। আর্জেন্টাইনরা এতটাই হতাশ হয়েছিলেন যে দলের সবচেয়ে সেরা খেলোয়াড়ের অবসরের দাবিই উঠে গেল। ব্যাপারটা এমন হয়ে দাঁড়াল, মেসিই যেন সমস্যা দলের জন্য। কিন্তু নাইজেরিয়ার বিপক্ষে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে কী দুর্দান্তভাবেই না ঘুরে দাঁড়ালেন মেসি। গোল করে দলের বিজয়ে রাখলেন বড় ভূমিকা। দলও খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে হলেও উঠে গেল বিশ্বকাপের শেষ ষোলোর লড়াইয়ে। প্রথম দুই ম্যাচে মেসি একটা খোলসের মধ্যে ঢুকে ছিলেন। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে সেই খোলসটা তিনি ভেঙেছেন—আর্জেন্টাইন সমর্থকদের স্বস্তির বিষয় এটিই। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে তিনি সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। পুরো ম্যাচেই ছিলেন আক্রমণাত্মক। মজার ব্যাপার হচ্ছে, কোচ সাম্পাওলিকে বাধ্য করেছিলেন কিছুটা নত হতে। ম্যাচের একপর্যায়ে গঞ্জালো হিগুয়েইনের জায়গায় সার্জিও আগুয়েরোকে মাঠে নামানো হবে কিনা, এটাই সাম্পাওলি মেসিকে জিজ্ঞেস করতে বাধ্যে হয়েছিলেন। মেসির এমন আক্রমণাত্মক মনোভাবকে আর্জেন্টিনার জন্য সুখবর হিসেবেই দেখছেন ফুটবল বোদ্ধারা। রাশিয়ান লা নিকন পত্রিকার সাংবাদিক সেবাস্তিয়ান ফেস্ট বলেছেন ‘মেসির আক্রমণাত্মক খেলাটা আর্জেন্টাইনদের জন্য অনেক বড় একটা সুখবর। কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ ফ্রান্স এ নিয়ে চিন্তিত হতেই পারেন। মেসি নিজেকে মেলে ধরতে পারলে যে কোনো কিছুই হতে পারে’।

Source: Plz, click here to show
--------------------------------
Next 10 Records

Media STN

Kaliakair, Gazipur, Dhaka, Bangladesh.
http://www.selltoearn.com

প্রধান উপদেষ্টা সম্পাদক: Selltoearn.com

E-mail:selltoearnmoney@gmail.com

উপদেষ্টা সম্পাদক: Selltoearn.com

কারিগরি সহযোগীতায় :
হেমাস আইটি http://www.selltoearn.com

E-mail: info@selltoearn.com

সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার Media STN